শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১

১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট সংস্করণ

মার্চ ১০,২০২০, ০৬:৩৬

পরশপাতা

ভোক্তাদের ঠকালেই শাস্তি

পরশপাতা

ভোক্তাদের ঠকালেই শাস্তি

অসাধু ব্যবসায়ীরা মেয়াদ উত্তীর্ণ ও ভেজাল পণ্য বিক্রিসহ বিভিন্নভাবে ভোক্তাদের ঠকাচ্ছেন। তবে ধরা পড়লে তাদের শাস্তিও পেতে হচ্ছে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভেজালবিরোধী অভিযানে।

এ পর্যন্ত প্রায় ৬০ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির তৃতীয় মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েই বাবলু কুমার সাহা বিভিন্ন উদোগ নিয়েছেন ভোক্তাদের স্বার্থে। প্রত্যন্ত অঞ্চলেও কাজ শুরু করেছেন তিনি।

 

কারওয়ানবাজারে প্রধান কার্যালয়ের নিজ অফিসেই গত রোববার একান্ত সাক্ষাতে ভোক্তাদের স্বার্থে এগিয়ে যাওয়ার বিভিন্ন তথ্য জানান আমার সংবাদকে। তার সাক্ষাৎকারের চুম্বক অংশ তুলে ধরেছেন সিনিয়র রিপোর্টার জাহাঙ্গীর আলম

ভোক্তাদের স্বার্থে বাজার অভিযান কেমন চলছে— প্রশ্নে বাবলু কুমার সাহা বলেন, দিন নেই, রাত নেই, শুক্রবার নেই, ছুটির দিন নেই— সব সময় কাজ করছে ভোক্তা অধিদপ্তর।

 

অন্য মহাপরিচালক (ডিজি), কে কি করেছেন জানি না। তবে আমি দায়িত্ব নিয়ে প্রথমেই ইউনিয়নপর্যায়ে সমাবেশ শুরু করেছি। তাজ্জবের বাপার পেঁয়াজ নিয়ে দেশে হইচই পড়লে পেঁয়াজের ক্ষেত পর্যন্ত চেক করা হয়েছে। আমি নিজেই অন্যসব অফিসারদের নিয়ে এই তদারকি করি।

শুধু কি তাই, ভোক্তারা যাতে না ঠকে এবং ব্যবসায়ীরাও যাতে সুষ্ঠু বিচার থেকে বঞ্চিত না হয় সে জন্য কাজ করা হচ্ছে। কারণ এই সরকার হচ্ছে ভোক্তা ও ব্যবসাবান্ধব। তা মাথায় রেখেই বাজার তদারকি করা হচ্ছে। কোনো অসাধু ব্যবসায়ী ভোক্তাদের ঠকালে রেহাই পাচ্ছে না।

অপরাধ অনুযায়ী তাদের শান্তি দেয়া হচ্ছে। তবে ভোক্তাদের যাতে অসাধু ব্যবসায়ীরা না ঠকায় সে জন্য সচেতনতামূলক বিভিন্ন কাজও করা হচ্ছে। কারণ জনসচেতনতার বিকল্প নেই।

শুধু রমজান মাস নয়, প্রতিদিনই রমজান মাসের গুরুত্ব উপলব্ধি করে বাজার অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এবারের ১৫ মার্চ ভোক্তা দিবস মুজিববর্ষকে উপসর্গ করা হয়েছে। একে কেন্দ্র করে সারা বছরই চলবে বিভিন্ন কর্মসূচি।

প্রতিনিয়ত অভিযোগ বাড়ছে— প্রশ্নে এই অতিরিক্ত সচিব বলেন, এটা সত্য। যতই দিন যাচ্ছে ততই অভিযোগ বাড়ছে। কারণ হচ্ছে ভোক্তাদের মধ্যে ব্যাপকভাবে প্রচার বাড়ছে। তাই অভিযোগও বাড়ছে। এটা ভালো বা ইতিবাচক দিক।

কারণ ভোক্তারা প্রকৃত তথ্য জানতে পারছেন। অভিযোগ করলে তাদের ডেকে আনা হচ্ছে। তা আমলে নিয়ে দ্রুত অভিযোগ নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তবে এটাও দেখা হচ্ছে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কেউ অভিযোগ করে কি না।

উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, একটা বড় হোটেলে বেশিকিছু না খেয়ে শুধু পানির বোতল নিয়ে অভিযোগ করলে বুঝতে হবে এটা অন্য উদ্দেশ্য।

POST COMMENT

For post a new comment. You need to login first. Login

COMMENTS(0)

No Comment yet. Be the first :)