শনিবার ১৫ মে ২০২১

১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট সংস্করণ

মার্চ ১০,২০২০, ০৯:০৩

পরশপাতা

মালয়েশিয়ায় বৈধ কর্মীদের কল্যাণ বোর্ডের সদস্য সংগ্রহে ভাটা

পরশপাতা

মালয়েশিয়ায় বৈধ কর্মীদের কল্যাণ বোর্ডের সদস্য সংগ্রহে ভাটা

বৈধ কর্মীদের সরকারের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিতে চালু হওয়া প্রবাসী কল্যাণ বোর্ডের সদস্য সংগ্রহে ভাটা পড়েছে মালয়েশিয়ায়। দুই বছর আগে সাবেক প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তত্কালীন প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী (বর্তমান পূর্ণ মন্ত্রী ইমরান আহমেদ মালয়েশিয়ায় এসে প্রবাসী কল্যাণ বোর্ডের সদস্য সংগ্রহের উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনের কিছুদিন প্রচার প্রচারণা চালানো হলেও বর্তমানে তা একেবারেই ঝিমিয়ে পড়েছে। এশিয়ার এই শ্রমবাজারে প্রায় ছয় লক্ষ বৈধ বাংলাদেশি অবস্থান করলেও সদস্য সংখ্যা একেবারে নিম্ন পর্যায়ে। মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বৈধ কর্মীদের সুবিধা দিতে ওয়েজ অনার্স কল্যাণ বোর্ড গঠিত হলেও প্রচারণা না থাকায় তেমন সাড়া পাওয়া যায়নি। ফলে, কল্যাণ বোর্ডের সদস্যদের জন্য অনেক সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার কথা থাকলেও প্রবাসীদের কাছে তা পৌঁছায়নি। সরকার বৈধ কর্মীদের কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হওয়ার সুযোগ করে দেয়।

 

কিন্তু সদস্য সংগ্রহের জন্য এলাকা ভিত্তিক কার্যক্রম না থাকায় বাস্তবায়ন হচ্ছে না সদস্য সংগ্রহ। ২০১৮ সালের ২৫ শে মার্চ সদস্য অন্তর্ভুক্তির উদ্বোধনের দিন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসির সে হাতে চারজন সরাসরি মন্ত্রীর হাতে আবেদন তুলে দেন। এরপরই যেন হারিয়ে গেছে সবার আগ্রহ। কারণ হিসেবে জানা গেছে, অনেকেই জানে না কিভাবে কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হতে হয়। এছাড়াও সদস্য হলে কি কি সুবিধা পাওয়া যায় তা জানা নেই অধিকাংশ প্রবাসীদের। যার কারণে দীর্ঘ দুই বছরের সদস্য সংখ্যায় তেমন সাড়া পড়েনি।

হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উদ্বোধনের পর লিফলেট ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারণা চালিয়ে সদস্য সংগ্রহের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু লাখ লাখ বাংলাদেশিকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে কি সদস্য সংগ্রহ সম্ভব এমন প্রশ্ন তুলেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

 

মালয়েশিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশিদের 'ওয়েজ অনার্স কল্যাণ বোর্ড'-এর সদস্যপদ পেতে ওয়েবসাইট www.wewb.gov.bdএ গিয়ে ফরম পূরণ করে, ১৯০ রিঙ্গিত ব্যাংক ড্রাফটসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বাংলাদেশ দূতাবাসে জমা দিতে হয়। কাগজপত্রের মধ্যে রয়েছে ২ কপি ছবি, (পাসপোর্ট সাইজের), ভিসা কপি, আবেদন জমা দেয়ার পর প্রয়োজনীয় যাচাই-বাছাই ও প্রক্রিয়া শেষে দূতাবাস ওয়েজ অনার্স কল্যাণ বোর্ডকে জানিয়ে দেয়। এরপর কল্যাণ বোর্ড সদস্য সনদ প্রদান করে।

মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের আকৃষ্ট করতে বাংলাদেশ দূতাবাস একটি প্রচারপত্র প্রকাশ করেছে। প্রচারপত্রে উল্লেখ রয়েছে, সদস্যপদ গ্রহণকারী প্রবাসীর মেধাবী সন্তানদের জন্য প্রতিবছর বোর্ড থেকে শিক্ষাবৃত্তি এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রবাসী কোটায় ভর্তির সুযোগ।

এ ছাড়াও প্রবাসে মৃত্যু হলে মরদেহ দেশে পৌঁছানোর জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান। মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের সময় বিমানবন্দরে লাশ পরিবহন ও দাফন খরচ বাবদ ৩৫ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য। প্রবাসে মৃত্যু হলে মৃতের পরিবারকে ৩ লাখ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান করা ছাড়াও পুনর্বাসন লোনসহ আরও নানা কল্যাণমূলক সুযোগ-সুবিধা পাবে। বর্তমান সরকার প্রবাসীদের কল্যাণে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করলেও অজানার কারণে প্রবাসীর সেসব সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে জানান বাংলাদেশি ব্যাবসায়ী আলী।

বাংলাদেশ সরকারের প্রবাসীদের উন্নয়নে গঠিত প্রবাসী কল্যাণ বোর্ড কি এবং তার সুযোগ সুবিধা জানতে প্রায় শতাধিক বাংলাদেশির সঙ্গে আলাপ করলেও কেউ বলতে পারিনি কি সেই প্রবাসী কল্যাণ বোর্ড।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মালিশের কমিটির এক নেতা জানান, দুই বছরের প্রবাসী প্রবাসীদের কল্যাণে সরকারের চালিত সদস্য সংখ্যা ভাটা পড়েছে কারণ প্রচার-প্রচারণা না থাকার কারণে। তিনি আরও দাবি করেন যদি প্রত্যেকটি প্রদেশে একটি করে হাইকমিশনের ছায়া অফিস করে যদি প্রচারণা চালানো হতো তাহলে বৈধ সব বাংলাদেশি সদস্য হতে পারত। প্রবাসী কল্যাণ সদস্যদের প্রচারণা এবং কি কি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে এ ব্যাপারে জানতে মালয়েশিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ হাই কমিশনের এক কর্মকর্তাকে একটি খুদে বার্তা দেয়া হলেও থেকে কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি।

POST COMMENT

For post a new comment. You need to login first. Login

COMMENTS(0)

No Comment yet. Be the first :)